ক্লিপার ম্যালাওয়্যার

নতুন ভয়ের নাম ক্লিপার ম্যালওয়্যার, আপনার এন্ড্রোয়েড ফোনটি কি সুরক্ষিত?

আপনি যখন খুব সহজে কোন বাস জার্নি করছেন, তখন হয়তো আপনার পকেট থেকে আপনার মানি ব্যাগটি চুরি হয়ে গেছে। কিন্তু আপনি জানতে পারলেন না। ঠিক তেমনি ভাবে এন্ড্রোয়েড ব্যাবহার কারীদের জন্য নতুন করে ভয় সৃষ্টি করেছে ক্লিপার ম্যালাওয়্যার। গত ৪ জানুয়ারী ২০১৯ সালে গুগোল প্লে স্টোরে প্রথম ক্লিপার ম্যালাওয়্যার ছাড়া হয়। এটা আপনার E-Wallet থেকে সেই পকেট মারের মত করেই টাকা নিয়ে উঠাও হয়ে যাবে কিন্তু আপনি জানতেও পারবেন না। আজকে জানতে পারবেন ক্লিপার ম্যালাওয়্যার কি? কিভাবে কাজ করে ক্লিপার ম্যালাওয়্যার? এবং আপনি কিভাবে ক্লিপার ম্যালাওয়্যার থেকে নিজেকে সুরক্ষিত রাখবেন?

ক্লিপার ম্যালওয়্যার কি?

ক্লিপার ম্যালাওয়্যার
ক্লিপার ম্যালাওয়্যার

 

ক্লিপার ম্যালাওয়্যার মূলত কাজ করে ক্লিপের কপি পেস্টের ওপর ভিত্তি করে। হ্যাকার গন খুবই সুন্দর ও সুক্ষ কন্সেপ্ট ব্যবহার করেছে এখানে। তাদের মূল টার্গেট মূলত ক্রিপ্টোকারেন্সি ব্যবহারকারীরা। যেমন ধরুন বিটকয়েন, ইথারিয়াম এইসবের ব্যবহার কারীদের কে হ্যাকার টার্গেট করে। আপনি যখন কারো সাথে আপনার E-wallet এর মাধ্যমে অর্থ লেন দেন করবেন। তখন সব টাকা হ্যাকারের হাতে চলে যাবে।

ড্রোন কি? ড্রোন কিভাবে কাজ করে? বিস্তারিত জানুন

ক্লিপার ম্যালওয়্যার কিভাবে কাজ করে?

ক্লিপার ম্যালাওয়্যার
ক্লিপার ম্যালাওয়্যার

সব কিছুই বুঝলাম, এখন প্রশ্ন হচ্ছে কিভাবে ক্লিপার ম্যালাওয়্যার কাজ করে? ক্লিপার ম্যালাওয়্যার কাজ করে ক্লিপ কপি পেস্টের উপর ভিত্তি করে। আপনি আপনার ডিভাইস ব্যাবহারে সময় কি কি কপি করছেন সব কিছু ক্লিপার ম্যালাওয়্যার মনিটর করে। আপনি যখন কোন E-Wallet এড্রেস কপি করেন ও সেটা পেস্ট করতে যান, তখনই এই ম্যালাওয়্যার আপনার এড্রেসের স্থানে হ্যাকারের দেয়া এড্রেস বসিয়ে দেয়। কিন্তু আপনি বুঝতে পারবেন না এই কারনেই যে, E-Wallet গুলো অনেক বড় হয়ে থাকে। সাধারণত ১৬ ডিজিটের। আমরা এত লক্ষ করি না আসলেই পেস্টের সময় আমাদের দেয়া নিদির্ষ্ট Wallet এড্রেস টি পেস্ট হচ্ছে কি না। যখনই আপনি সেই এড্রেসে টাকা পাঠাবেন বা অন্য কাওকে আপনার সেই এড্রেস টি দিবেন তখনই সকল টাকা গুলো হ্যাকারের এড্রেসে চলে যাবে।

ক্লিপার ম্যালাওয়্যারের ইতিহাস

জিপিএস (GPS) কি? জিপিএস ট্রাকিং কি? এর কাজ করার পদ্ধতি কেমন?

ক্লিপার ম্যালাওয়্যার যে এখনই নতুন আবির্ভুত হচ্ছে তাই না। এটা ২০১৭ সালে প্রথম আমাদের সামনে আসে। যদিও তখন সেটা উইন্ডোজ কম্পিউটার গুলোতে শুধু এট্যাক করা হয়েছিল। পরর্বতিতে এসে এন্ড্রোয়েডের জন্য আলাদা ভাবে ক্লিপার ম্যালাওয়্যার বানানো হয় ও সেই মাল্যাওয়্যার গুলোকে ব্লাক মার্কেটে সেল করা হয়। ২০১৬ সালে ক্লিপার ম্যালাওয়্যারের মত গোলিগান ম্যালাওয়্যারের মাধ্যামে প্রায় ১ মিলিয়ন ডিভাইস আক্রান্ত করা হয়। কিন্তু ২০১৯ সালে এসে সব রেকর্ড ভেঙ্গে দিয়ে এন্ড্রোয়েডের স্টোর গুগোল প্লে তে প্রথম ক্লিপার ম্যালাওয়্যার যুক্ত একটা এপ্স ছাড়া হয়। যেটা গুগল ভেরিফিকেশন করে কোন সমস্যা ছাড়াই মার্কেটে ঢুকে পরে। যদিও এটা ৭ দিনের বেশি গুগোল প্লে তে থাকতে পারে নাই।

বাইনারি সংখ্যা কি? আপনার কম্পিউটার কিভাবে বাইনারি সংখ্যা বুঝে থাকে?

কি ধরণের এপ্সে ক্লিপার ম্যালাওয়্যার থাকতে পারে?

এটা যেকোন ধরণের এপসেই থাকতে পারে। যদিও প্লে ষ্টোরে প্রথম পাওয়া যায় ক্রিপ্টো কারেন্সি চেঞ্জার একটু এপসে। যার নাম MetaMask এটা মূলত একটা ব্রাউজার টাইপ এপস। যেহেতু এটাকে প্রে ষ্টোরে পাওয়া গেছে তাই এটাকে অনেক ধরণের এপসেই ব্যবহার করা যেতে পারে। যদিও গুগোল এটা প্রতিরোধ করার জন্য কাজ করছে। আপনি আরো জানতে এই টুইটার প্রোফাইল টা চেক করুন Lukas Stefanko (@LukasStefanko)

ক্লিপার ম্যালাওয়্যার থেকে কিভাবে সুরক্ষিত থাকবেন?

এটা আসলে অনেক বড় একটা প্রশ্ন। যেহেতু গুগল প্লে স্টোরে এই এপস পাওয়া গেছে, তাই নিজের পক্ষে নিরাপদ থাকা খুবই কঠিন। তারপরেও এর থেকে রক্ষা পেতে হলে আপনাকে একটু সচেতন থাকতে হবে। ক্লিপার ম্যালাওয়্যার কিভাবে কাজ করে সেটা যদি বুঝতে পারেন তাহলে এটা আরো সহজ হয়ে যাবে। আপনি প্লে ষ্টোর থেকে যখন কোন এপস ডাউনলোড করবেন তার পাবলিস ডেট ও ডাউনলোড সংখ্যা দেখুন। কেননা কোন স্ক্যাম এপস খুব বেশি ডাউনলোড হয় না। তাই বেশি ডাউনলোড হওয়া এপস ডাউনলোড করুন। সাথে যদি সম্ভব হয় পপুলার পাবলিশিয়ারের অপস ব্যবহার করুন। এটা ছাড়া এখন পর্যন্ত কোন রকম উপায় এর পথ নাই। যেহেতু প্লে ষ্টোরে এর আপডেট আসে নাই। তাই কিছু দিন ওয়েট করুন।

ক্লিপার ম্যালাওয়্যার
ক্লিপার ম্যালাওয়্যার

শেষ কথা

আশা আমার এই আর্টিকেল আপনার ভাল লাগেছে। আমাদের দায়িত্ব আপনাদের তথ্য দেয়া। কিন্তু সুরক্ষিত থাকার দায়িত্ব আপনার নিজের। ইন্টারনেট যেভাবে সব সুন্দর করে দিয়েছে আমাদের তেমনি ভাবে আমাদের জীবন কে ঝাঝরা বানাই দিতেও পারে। তাই সচেতন থাকবেন। ভাল থাকবেন।

হ্যাকিং শিখতে চান !

About the Author: Sayed.Pappu

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *