আমারিকার রসোওয়েল

সত্যি এলিয়েনদের সাথে কি দেখা হওয়া সম্ভব ?

সত্যি এলিয়েনদের সাথে কি দেখা হওয়া সম্ভব ?

আমরা বসবাস করি এই পৃথিবীতে আর  এটি হল আমাদের ঘর আর আমাদের মধ্যে অধিকাংশ মানুষই আমাদের প্রায় সারা জীবন এখানেই কাটিয়েছি । এই সুন্দর তারাভরা চাদরের নিচে এটা না জেনেই যে আমরা কে এবং আমরা এখানে এসেছি কিভাবে? কিন্তু ধীরে ধীরে যখন আমাদের বুদ্ধির বিকাশ হয় তখন আমরা এ দুনিয়াকে পড়তে শুরু করি।

এবং এর সম্বন্ধে অনেক কিছুই জানতে শুরু করি প্রায় 400 বছর আগে থেকে আমরা বিজ্ঞানকে বুঝতে শুরু

করেছি এবং মানব সভ্যতা প্রকৃতির  প্রকৃতির রহস্য এবং নিয়মগুলি সাথে অবগত হয়েছি । মানুষের দ্বারা নতুন নতুন জিনিসের খোঁজ এবং আবিষ্কারের এই চাকা একবার যখন ঘুড়েছে  তারপর থেকে নতুন নতুন খোঁজ পেয়ে চলেছে এবং আমরা অনেক মহান বৈজ্ঞানিকদের কে পেয়েছি যারা আমাদের জীবন যাত্রাকে করেছে খুবই সহজ । কল্পনাকে বাস্তবে রুপ দিয়েছি আমরা । মানুষের  মনে প্রশ্ন এসেছিল যে ওই তারায় ভরা মহাকাশের পিছনে কি রয়েছে? আর এই প্রশ্নটি আমাদের মহাকাশে পাড়ি দেওয়ার ইচ্ছার বীজ বপন করে। তারপর আমরা বুঝতে পারি যে আমাদের প্লানেট এর মত   আরো অনেক প্লানেট রয়েছে, যেগুলি আমাদের মত ব্রহ্মাণ্ডে অবস্থিত এবং আমাদের সূর্যের মত কোন একটা সূর্যকে প্রদক্ষিণ করছে । আজকে আমরা জানি শুধুমাত্র আমাদের গ্যালাক্সিতেই লক্ষ লক্ষ কোটি কোটি  গ্রহ রয়েছে এবং অসংখ্য নক্ষত্র রয়েছে । এখন কথা হলো আমাদের প্লানেট এর মত আরও কি অন্য প্লানেট আছে যে খানের জল বায়ুতে প্রানের জীবন সম্ভব। 

 

আমারিকার রসোওয়েল

যাই হোক এখন কিছু  ঘটনায় যাওয়া যাক 

আমারিকার রসোওয়েল এ  ১৯৪৭ সালের মাঝামাঝি সময়ে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আর্মি এয়ার ফোর্সের একটি বেলুন নিউ মেক্সিকোয়ের রোজওয়েলের কাছে একটি রেঞ্চের উপর বিস্ফরিত হয়েছিল । আর আমিরিকান সরকার এই খবরটি ধামা চাপা দেওয়ার জন্য আমারিকার রসোওয়েল এর এই স্থানটির চিহ্ন তাদের মানচিত্র থেকে মুছে দিয়ে ছিল । যাইগাটির রহস্য কে গোপন রাখার জন্য তারা জাইগাটির একটি নাম দিয়ে রেস্টিকটেক্ট করে দেয়   এমন কি আমিরিকান সরকার কে জিজ্ঞাসা বাদে ও বিষয় টি অস্বিকার করেন । গুগোল মাপেও যদি যাইগাটি দেখেন তাহলে দেখবেন এরিয়া 51 এর একটি স্থান কে ব্লার করে রাখা । অর্থাৎ সাটেলাইট থেকেও এই জাইগাটির ছবি উঠানো সম্ভব না । 

আরো পড়ুনঃ

আমারিকার রসোওয়েল এর এই ঘটনা অনেক বিজ্ঞানী বলেন সত্যি আবার অনেক বিজ্ঞানী এটি মিথ্যা বলে উরিয়ে দেয়। যাই হোক আজ আমি নিজের একটি কন্সপেয়ারী থিওরী দিয়ে বিষয় টাকে ব্যক্ষা করবো দেখবো ঘটনার সত্যতা কি ? 

আমারিকার রসোওয়েল এর ১৯৪৭ সালের এই ঘটনাটির পর একটি গোয়েন্ডা টিম  এই বিষয়ে একটি নিউজ প্রকাশ করেছেন সেই তত্ত্য মোতাবেক বলা হয় ARIA 51 একটি ইউএস মিলিটারি বেজ় যেখানে আমিরিকা বিভিন্ন নিউ টেকনলজির এয়ার র্কাফট এর উপর রিসার্স করেন । আর তাছাড়া তারা নতুন নতুন প্রযক্তি নিয়ে গবেষনা করার জন্য এই স্থানটি ব্যভার করা হয়ে থাকে। 

 

আমারিকার রসোওয়েল

এই বাক্তি ধারনা করেন যে তিনি এরিয়া ৫১ এর একজন কর্মী এবং সেখানে এলিয়েন দের নিয়ে গবেষনা করা হয় বলে জানিয়েছেন । আরোও কিছু ছবি প্রকাশ করেছিলেন এই বাক্তি তার মৃত্যুর কিছু সময় আগে। ছবি গুলোতে মৃত কিছু এলিয়েন দের দেখতে পারবেন ।

 

 

এই ছবিটি তিনি প্রকাশ করেছিলেন তাছাড়া আরো কিছু ছবিও তিনি দেখিয়েছিলেন মিডিয়াকে ।

এছাড়া এই UFO বিধ্বস্তের কথা কিছু নিউজ পেপার ও  প্রকাশ করেছিল।

 

এই বিষয়ে আরো কিছু নতুন প্রমান নিয়ে এরিয়া ৫১ এর রহস্য ভেদ করতে আবার আসবো আপনাদের মাঝে  ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন।

 

 

Emoo Blaze

Add comment