অনলাইনে আয় করার কিছু মাধ্যম। অনলাইন থেকে আয় করুন।

অনলাইনে আয় করতে আমরা সবাই চাই, কিন্তু আপনি কি সঠিক পথটি পাচ্ছেন না? তাহলে এটা পড়ে আসতে পারেন।

অনলাইনে আয়

বন্ধুরা আজ আপনাদের সাথে আমি আলোচনা করবো কিভাবে অনলাইনে আয় করতে পারবেন? অনলাইনে আয় করার ইচ্ছা কম বেশি সবার মাঝেই আছে। কিন্তু আমরা জানিনা কিভাবে অনলাইনে আয় করতে হয়? মূলত সেই কারণেই আজ আপনাদের সামনে নিয়ে আসলাম এই পোস্টটি, একটু সময় নিয়ে পড়ুন আশা করি অনলাইন থেকে আয় এর ব্যাপার টা আপনাদের পরিষ্কার হয়ে যাবে।

 

অনলাইনে আয়
অনলাইনে আয়

চলুন তাহলে শুরু করা যাক আমাদের আলোচনা, বন্ধুরা সবার আগে আমি অন্যান্য আউটসোর্সার দের মতই বলে দিতে চাই অনলাইনে আয় কিন্তু খুব সোজা কাজ না । আমরা যা ভাবি আমরা ১ মাসের মধ্য বড়লোক হয়ে যাব, প্রথম দিন থেকেই আমাদের হাতে টাকা আসতে শুরু করবে এই আশা নিয়ে যদি আপনি এইখানে আসেন তাহলে আপনাকে অব্যশই অব্যশই সব কিছু গুটিয়ে নিয়ে নিজের জায়গাই ফিরে যেতে হবে । কেননা এটা কোন যাদুর চেরাগ না যেটা আপনাকে ২ দিনেই বড়লোক করে তুলবে, অনেক পরিশ্রম, দক্ষতা, আর বুদ্ধির মাধ্যমে আপনাকে নিজের অবস্থান পাকা করতে হবে তবেই আপনি পেতে পারেই সাফল্য । তাই আপনাকে একটু সময়  দিতে হবে আর করতে হবে একটু ধর্য ।

অনলাইনে আয়
অনলাইনে আয়

তাহলে চলুন জেনে আসি আপনি কিভাবে অনলাইনে আয় করতে পারবেন ? ও কিছু নির্ভর যোগ্য উপায় সমূহ ।

অনলাইনে আয় করার নির্ভরযোগ্য উপায় সমূহ

  • অনলাইনে আয় আপনি Upwork.com, Fivver.com বা অন্যান্য ফ্রিলান্সিং মার্কেটপ্লেস করতে পারেন ।
  • অনলাইনে আয় আপনি ওয়েব সাইট বা ব্লগ সাইট থেকে থেকে করতে পারেন ।
  • অনলাইনে আয় আপনি ইউটিউব চ্যানেল থেকে করতে পারেন ।
  • অনলাইনে আয় আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে করতে পারেন ।
  • অনলাইনে আয় আপনি সিপিএ মার্কেটিং এর মাধ্যমে করতে পারেন ।
  • অনলাইনে আয় আপনি লিঙ্ক সোর্ট করে করে করতে পারেন ।

অনলাইনে আয়
অনলাইনে আয়

Upwork.com, Fivver.com বা অন্যান্য ফ্রিলান্সিং মার্কেটপ্লেস থেকে অর্থ উপার্জন। ( অনলাইনে আয়)

অনলাইনে আয় করার সব থেকে উপায় হচ্ছে ফ্রিলান্সিং মার্কেটপ্লেসে কাজ করা । Upwork বা Fivver হচ্ছে এমন এক ধরনের ওয়েব সাইট যেটার মাধ্যমে আপনি যে বিষয় টা ভাল জানেন অথবা অভিজ্ঞ সেটার মাধ্যমে অন্যর কাজ করে দিয়ে নির্ভানায় অনলাইনে আয় করতে পারবেন । তাছাড়া আপনি নিজের সেবা অন্যদের কাছে বিক্রি কাছে বিক্রি করে অর্থ উপার্জন করতে পারেন । ধরুন আপনি একজন ভাল মানের ওয়েব ডিজাইনার এখন আপনি আপনার কিছু কাজের ডেমো বানিয়ে Upwork বা Fivver এ আপনার প্রোফাইল এ দিলেন এখন যারা আপনার কাজ টাকে পছন্দ করবে সে আপনার এই কাজ টা কিনে নিবে ।অথবা কারো কোন একটা ওয়েবসাইট বানানো দরকার এখন সে  Wpwork বা  Fivver এ সেটা বানানোর জন্য একটা অফার করেছে । আপনি যদি চান সেটার জন্য বিড ধরতে পারেন । যদি তার আপনার ডেমো গুলো পছন্দ হয় তবে সে আপনাকে তার কাজ টি দিবে ।

সুতরাং এই কাজটি করার পূর্বে আপনাকে অব্যশয় যে কাজ টি করবেন বলে ভাবছেন সেই কাজের জন্য দক্ষ হতে হবে । আপনাকে অনেক দ্রুত হুতে হবে যেন আপনি সবার ফোকাসে পরতে পারেন । তাছাড়া আপনাকে অব্যশয় নিজের প্রোফাইলটা গুছিয়ে সুন্দর করে তুলতে হবে । কেননা আপনি কে , কি করেন এই ব্যপারে কেও কিছু জানে না । আপনার প্রোফাইল দেখেই সবাই আপনার কাছে আসবে সুতরাং প্রোফাইলটা ভাল মানের হওয়া খুব দরকার । কিন্তু আবার বলছি বন্ধুরা আপনাকে ধর্য ও সময় এর চরম পরিক্ষা দিতে হবে ।

অনলাইনে আয়
অনলাইনে আয়

Youtube থেকে আয় ( অনলাইনে আয় )

WWW.YOUTUBE.COM

বর্তমানে অনলাইনে আয় করার জনপ্রিয় মাধ্যম হয়ে উঠেছে ইউটিউব । ইউটিউব থেকে আয় করা যায়( আনলাইনে আয় ) এটা হইতো আমরা এখন সবাই জানি । ইউটিউব থেকে আয় করতে হলে আপনাকে সবার আগে জানতে হবে ইউটিউব কি? কিন্তু বন্ধুরা এখন ইউটিউব কি সেটা আর আপনাদের কে আলাদা করে বুঝিয়ে বুঝানো লাগবে না । ইউটিউব থেকে আপনি ইচ্ছা করলে খুব ভাল পরিমানে আয় করতে পারবেন । আপনাকে প্রথমে একটি ইউটিউব চ্যনেল খোলা লাগবে, সেটা আপনি ইউটিউবে গেলেই বুঝতে পারবেন কিভাবে খুলতে হয় । আপনি নতুন নতুন ভিডিও আপলোড দিন, চাইলে নিজে নিজে ভিডিও বানান সেটা ইউটিউবে আপলোড দিন । সেটাতে যত ভিজিটর বাড়বে আপনার আয়ও বাড়তে থাকবে । এখন কথা হচ্ছে আপনি টাকা পাবেন কিভাবে কে বা দিবে ? আপনি টাকা টা পাবেন গুগল এডসেন্স থেকে, আপনার ভিজিটর যত বেশি হবে গুগল আপনাকে তত বেশি টাকা দিবে । কিন্তু আপনি সেই জন্য কোন কপিরাইট ভিডিও দিবেন না । তাহলে আপনি ব্যান খেয়ে যাবেন এটা নিশ্চিত, তাই আপনি নিজে ভিডিও বানিয়ে দিতে পারেন ।

এখন হইত ভাবতে পারেন আপনি কি বানিয়ে দিবেন? বন্ধুরা আপনি যেটা ভাল পারেন আপনি সেটাই ইউটিউবে শেয়ার করে দিন । ধরুন আপনি রান্না করতে ভাল পারেন, তাহলে আপনি রান্না করার ভিডিও ইউটিউবে আপলোড করে সবার মাঝে শেয়ার করে দিন, কিভাবে রান্না করতে হয় অথবা রান্নার অনেক রেসিপি নিয়ে আপনি ইউটিউবে ভিডিও গুলো আপলোড করে দিন । আপনার ভিডিও গুলো যদি ভাল হয়, সবার কাছে যদি ভাল লাগে আপনি এটাতে অনেক ভিউ পাবেন । তবে আপনাকে অব্যশয় একটা দিক মাথাই রাখতে হবে সেটা হচ্ছে আপনার ভিডিও গুলো যেন মান সম্মত হয় । কেননা মান সম্মত ভিডিও না হলে আপনি ভাল মানের ভিউ পাবেন না ।

ওয়েব সাইট বা ব্লগ থেকে আয় করুন ( অনলাইনে আয় )

অনলাইনে আয় করার আরেক টি ভাল মাধ্যম হচ্ছে ব্লগ বা ওয়েব সাইট থেকে আয় । এটাতে আপনি অনেক ভাল পরিমান অর্থ আয় করতে পারবেন অনলাইন থেকে, আপনার যদি নিজের কোন ওয়েব সাইট বা ব্লগ থাকে তাহলে  আপনি আপনার সাইটে অনেক ভিজিটর টেনে খুব ভাল পরিমান ইনকাম করতে পারবেন । কিন্তু আপনাকে একটি দিক খুব ভালভাবে খেয়াল রাখতে হবে আপনি আপনার ব্লগে যে কন্টেন্ট গুলো দিবেন সেগুলো যেন খুব ভাল মানের হয়, কেননা ভাল মানের কন্টেন্ট যদি ভিজিটর রা না পায় তাহলে আপনি কোন ভাবেই ভাল ভিজিটর পাবেন না । তাছাড়া আপনি যখন একটা ব্লগ খুলবেন তখন আপনার প্রথম পছন্দ থাকবে গুগল এডসেন্স, কিন্তু আপনার ব্লগ বা সাইটে যদি ভাল কন্টেন্ট না থাকে তাহলে আপনি গুগল এডসেন্স পাবার কথা ভুলেও চিন্তা করবেন না।

অনলাইনে আয়
অনলাইনে আয়

 

যদিও গুগল এডসেন্স ছাড়াও আরো অনেক কম্পানি আছে যারা আপনার সাথে এড পাবলিশ করে থাকবে । কিন্তু সেগুলো আপনাকে গুগলের থেকে অনেক কম পরিমান অর্থ দিয়ে থাকবে তদের শেয়ার থেকে, কিন্তু আপনি যদি খুব ভাল পরিমান ভিজিটর আপনার ব্লগ বা ওয়েব সাইটে টানতে পারেন তাহলে এই সব এড গুলো ব্যবহার করে অনেক ভাল পরিমান আয় করতে পারবেন । তাছাড়া নিজের ওয়েব সাইটের ভাল একটা সুবিধা হচ্ছে আপনি ইচ্ছা করলে আপনার সাইটে অনেক গুলো কোম্পানির এড একসাথে ব্যবহার করতে পারবেন । এতে আপনার আয়ের পরিমান টা অনেক বাড়বে ।

আপনারা হইত ভাবতে পারেন একটা সাইট বানানো খুব ব্যায়বহুল হবে। কিন্তু না বন্ধুরা এখন একটা সাইট বানানোর জন্য তেমন টাকার প্রয়োজন হয় না। মাত্র ২০০০-৩০০০ টাকার মাঝেই আপনি আপনার ব্লগ সাইটকে দ্বার করাতে পারেন। তাই আমার আশা বন্ধুরা আপনারা নিজের ব্লগ বা ওয়েব সাইট খুলে অনলাইন থেকে আয় এর এই পথ টি বেছে নিতে পারেন।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং থেকে আয় করুন ( অনলাইনে আয় )

অনলাইনে আয় করার আরেকটি বড় মাধ্যম হচ্ছে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং থেকে আয় । বন্ধুরা তোমরা  হইতো অনেকেই  অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর কথা কম বেশি শুনেছো। কিন্তু হইতো বুঝতে পারোনা বা জানো না এটা আসলে কি?  অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হচ্ছে আপনি কোন একটা কোম্পানির কোন প্রোডাক্ট নিয়ে যদি আপনার রেফারে সেল করাতে পারেন তাহলে আপনি একটা নির্দিষ্ট পরিমান কমিশন পাবেন। কিন্তু তার আগে আপনাকে জানতে হবে এমন সার্ভিস দিয়ে থাকে কারা? আপনি চাইলে  অ্যামাজন, ফ্লিপকার্ট বা স্নাপডিল এদের প্রোডাক্ট এর আফিলেট করতে পারেন, এরা অনেক ভাল পরিমানের কমিশন দিয়ে থাকে। তাছাড়া আপনি যখন এই কাজ করতে থাকবেন আপনি নিজেই অনেক ভাল অ্যাফিলেট সাইট পেয়ে যাবেন। এখন হইত ভাবছেন আপনি অ্যাফিলিয়েট করবেন কিভাবে? আপনি সকল কমিউনিটি সাইট গুলোতে নিজের অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক শেয়ার করুন সেখান থেকে কেও যদি প্রোডাক্টটি কিনে থাকে তাহলে আপনি আপনার একাউন্টে তার থেকে কিছু পরিমান কমিশন পেয়ে যাবেন।

অনলাইনে আয়
অনলাইনে আয়

তাছাড়া অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর আরেকটি ভাল সুবিধা হচ্ছে আপনার যদি কোন ইউটিউব চ্যানেল বা ওয়েব সাইট থাকে তাহলে আপনি চাইলে সেগুলোর পাশাপাশি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারেন। আপনার ইউটিউব চ্যানেলে আপনি আপনার লিঙ্ক টি দিয়ে প্রোডাক্টটির একটা রিভিউ দিন অথবা আপনার ওয়েব সাইটে আপনার অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক টি শেয়ার করুন তাহলে আপনার এটা হবে একটি বাড়তি ইনকাম।

সিপিএ মার্কেটিং থেকে আয় করবেন ( অনলাইনে আয় )

অনলাইনে আয় করার নতুন কিন্তু অল্প সময়ে জনপ্রিয় মাধ্যম হচ্ছে সিপিএ মার্কেটিং । আসুন তবে সিপিএ মার্কেটিং এর বিষয়ে কিছু আলোচনা করি। বন্ধুরা আপনাদের অনেকের কাছেই হইত এই সিপিএ মার্কেটিং নাম টা নতুন মনে হতে পারে। কিন্তু যারা আনলাইনে আয় করতে চাই তাদের কাছে সিপিএ মার্কেটিং একটা স্বপ্নের মত। আপনি যদি সিপিএ মার্কেটিং করতে চান তাহলে তেমন কিছুই জানতে হবে না। তবে আপনি জেনে রাখতে হবে সিপিএ মার্কেটিং হচ্ছে অ্যাফিলিয়েট  মার্কেটিং এর একটা অংশ বিশেষ। এখন আপনারা জানতে চাইবেন এটা কি?

অনলাইনে আয়
অনলাইনে আয়

বন্ধুরা সিপিএ মার্কেটিং হচ্ছে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মতই শুধু অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এ আপনাকে একটি প্রোডাক্ট সেল করতে হবে তবেই টাকা পাবেন কিন্তু সিপিএ মার্কেটিং এ আপনাকে কোন প্রোডাক্ট সেল এর ঝামেলার মাঝে যাতে হবে না। আপনি সিপিএ সাইটে গেলে কিছু কাজ পাবেন সেই কাজ গুলো করে দিলেই আপনি একটা কমিশন পেয়ে যাবেন। যেমন ধরুন আপনিউ ফর্ম ফিল আপ করছেন আপনি যদি এই টার্গেট টা পুরা করতে পারেন তবে আপনি তার থেকে কমিশন পাবেন।

শেষকথা

বন্ধুরা আমি আপনাদের কাছে সঠিক ভাবে অনলাইনে আয় করার কিছু পথ দেখিয়ে দিলাম। এই পথ গুলোতে যদি আপনি সঠিক ভাবে যেতে পারেন ও ধর্য ধারণ করে কাজ চালিয়ে যেতে পারেন আশা করি আপনাকে আর ফিরে তাকাতে হবে না। আর তাছাড়া আপনাদের কে যে সোর্স সাইট গুলো দিয়েছি সেই গুলোকে ১০০ % বিশ্বাস করা যায়। বন্ধুরা আমরা অনলাইনে অনেকেই অনেক কাজ করে থাকি কিন্তু সেই গুলো লিগাল নাকি ইলিগাল নাকি এই সব না বুঝে আমরা কাজ করে যাই। পরর্বতিতে যখন তারা আমাদের টাকা না দিয়ে চলে যায় আমরা বলে থাকি অনলাইনে কাজ করে কোন ইনকাম করা যায় না। কিন্তু আমি আপনাদের কে আজ যেই পথ গুলো দেখিয়ে দিলাম সেই পথ ধরে চলুন ১০০% গ্যারান্টি আপনি সফল হবেন। কিন্তু আপনাকে অব্যশয় প্রচুর ধর্যের পরিচয় দিতে হবে। আশা করি আমি আপনাকে কিছু শিখাতে পেরেছি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.